মেনু নির্বাচন করুন

লক্ষীপুর শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের সমাধিস্থল

লক্ষীপুর শহীদ সমাধিস্থলঃ
কুল্লাপাথরের পরেই এ থানায় যে সমাধিক্ষেত্রটি পরিচিত পেয়েছে সেটি হল লক্ষীপুর শহীদ সমাধিস্থল। মাত্র ১২ জন বীর শহীদের কবর এখানে। কসবা থানা সদর থেকে প্রায় ৩ কিলোমিটার উত্তর পূর্বে সীমান্তের পার্শ্বের এক প্রাকৃতিক মনোরম পরিবেশে এই সমাধিস্থল। অত্যন্ত বড়মাপের সমর নায়ক ২ নম্বর সেক্টরের প্রধান খালেদ মোশারফের নির্দেশে এই সমাধি ক্ষেত্রটি গড়ে উঠে। তৎকালীন সাব সেক্টর কমান্ডার আইন উদ্দিন, গ্রুপ কমান্ডার নাজির হোসেনের নেতৃত্বে লতুয়ামুড়া, চন্ডিদ্বার, কসবা, বগাবাড়ী, আকবপুর ইত্যাদি, এর মধ্যে বগাবাড়ীর আঃ ওহাব মিয়াার বাড়িতে মুক্তিবাহীনি ব্যাংকার করে পাক সেনাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ পরিচালনা করেছে বলে জানা যায়। এ সমস্ত এলাকায় সম্মুখ সমরে যারা শহীদ হয়ে ছিলেন তাদেরকে এখানেই সমাধিস্থ করা হয়েছে। এ সমাধিস্থলে সমাধিস্থ আছেন। (১) ল্যাফন্টেনেন্ট আজিজুল হক, (২) সুবেদার আবুল হোসেন, (৩) হাবিলদার আবদুল হাকিম, (৪) হাবিলদার আবুল কাসেম, (৫) নায়েক আবুল কালেম, (৬) ল্যান্স নায়েক নূরুল হক, (৭) সিপাহী আবেদ আলী, (৮) সিপাহী এনামুল হক, (৯) সিপাহী আবুল কাসেম, (১০) সিপাহী বুরহান উদ্দীন, (১১) সিপাহী রফিকুল ইসলাম, (১২) সিপাহী আবদুর রাজ্জাক।
সকল শহীদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করি। খন্ড খন্ড শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের কবর যেখানে রয়েছে সকল কবর একত্রিত করে কোল্লাপাথর শহীদ সমাধীস্থলে স্থানান্তর করার আহব্বান জানিয়েছেন এলাকাবাসী। জাতীর জনক বঙ্গবন্ধুর সু-যোগ্য কন্যা জননেত্রী মাননীয় প্রধান মন্ত্রী গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার, মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণের জন্য অগ্রণী ভূমিকা পালনে জাতী আজ শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করছে। 


Share with :

Facebook Twitter